ক্রিকেটের ইতিহাসে ঘটে যাওয়া ৩ টি আজব ঘটনা

ক্রিকেটের ইতিহাসে ঘটে যাওয়া ৩ টি আজব ঘটনা

এই শতাব্দীতে বিশ্ব ক্রিকেট অনেক কিংবদন্তি ক্রিকেটার পেয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে অনেক অধিনায়কও। যারা নিজের পারফরম্যান্সের পাশাপাশি দলকে উজ্জিবিত করেছেন।দেড়শো বছরের ক্রিকেট ইতিহাস উপহার দিয়েছে অনেক কিংবদন্তিকে। সচিন টেন্ডুল্কারের মতো অনেক কিংবদন্তির একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কিংবা টেস্ট ক্রিকেটে অহরহ সেঞ্চুরি থাকলেও নেই কোনো আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি সেঞ্চুরি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিন ফর্মেটে সেঞ্চুরি আছে এমন ক্রিকেটারের সংখ্যাও কম। ক্রিকেট মানেই হাশি কান্না আর বাধ বাঙা লড়াই। ক্রিকেত মানেই ব্যাট বলের লড়াই। তবে এসবের মাঝেও ঘটে যায় নানা রকমের ঘটনা। আজকে আমরা এমনই ক্রিকেটের ইতিহাসে ঘটে যাওয়া ৩ টি আজব ঘটনা নিয়ে আলচনা করা হবে যা হয়তো আপনারা আগে জানতেন না।

ক্রিকেটের ইতিহাসে ঘটে যাওয়া ৩ টি আজব ঘটনা

আজব ম্যান অব দ্যা ম্যাচ:

সময়ের সাথে সব কিছু কত দ্রুত বদলে যাত তাইনা? গত শতাব্দীর বিশের দশকে তখনকার বিজ্ঞানীরা যেসব জিনিসের কথা কল্পনাও করতে পারেননি তা এখন আমাদের প্রতিদিনের নৃত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রি। এই যেমন নব্বইয়ের দশকের শেষ দিকেও ক্রিকেটাদের ম্যাচ সেরা পুরস্কার হিসেবে রঙিন টিভি কিংবা অন্যান্য ইলেকট্রনিকস পন্য দেয়া হতো। যা হয়তো এখনকার দিনে কেউ সহজে বিশ্বাস করবেনা।কিন্তু ক্রিকেটের ম্যান অব দ্যা ম্যাচের পুরস্কার কি রাইস কুকার বা ব্লেন্ডার হতে পারে? ইংল্যান্ডকে প্রথন বিশ্বকাপ পাইয়ে দেয়া ইয়ন মরগান এখন রীতিমতো দেশটির মনের রাজায় পরিনত হয়েছেন। যে কারনে এখন বিশ্বের প্রায় প্রতিটি টুর্নামেন্টে তাকে বেশি দামে হলেও নিতে চাচ্ছে। ২০১৩ সালে যখন গাজী ট্যাংকের হয়ে তিনি অনন্য একটা ইনিংস খেলেছিলেন সে সময় তিনি ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছিলেন। আর তখন আয়োজকরা তার হাতে একটি রাইস কুকার তুলে দেন।

ক্রিকেটের ইতিহাসে ঘটে যাওয়া ৩ টি আজব ঘটনা

টি-টোয়েন্টিতে মেইডেন ওভার:

ভারতীয় বোলার বুমরাহ ভালো বোলিংয়ের জন্য খুব অল্প সময়ে বেশ নাম কুড়িয়েছেন। অদ্ভুত অ্যাকসনে বোলিংয়ের পাশাপাশি তার বোলিংয়ে বেশ বৈচিত্র লক্ষ করা যায়। ইওর্কারের রাজা হিসেবেও পরিচিত জাস্পৃত বুমরাহ। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সবথেকে বেশি মেইডেন ওভার বল করেছেন বুমরাহ। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তিনি ম্যাচ খেলেছেন ৫৫টি, করেছেন ১৭৯টি ওভার তার ঝুলিতে আছে ৫৯টি উইকেট। ৭টি মেইডেন ওভারের মালিক বুমরাহ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার থেকে বেশি মেইডেন ওভার আর কেউ করতে পারেনি।

ক্রিকেটের ইতিহাসে ঘটে যাওয়া ৩ টি আজব ঘটনা

ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি ছক্কা:

শহীদ আফ্রিদি পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেটের সাবেক অধিনায়ক। বিশ্ব ক্রিকেটে শহীদ আফ্রিদিকে সবচেয়ে হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান বলা হয়ে থাকে। তার ছক্কা হাকানোর ক্ষমতা সত্যিই অসাধারণ ছিলো। তবে তিনি পাকিস্তানের হয়ে ক্রিকেট খেলার সময় কখনই ধারাবাহিক পারফরমেন্স করতে পারননি। ফলে অনেক সময় তার দলকে পরাজয় বরণ করতে হয়েছিল। তবে তিনি যেইদিন জ্বলে উঠতেন প্রতিপক্ষের বোলারদের আতক্ঙিত করে তুলতেন। ছক্কা হাকানোর অসাধারণ দক্ষতার কারণে ক্রিকেট প্রেমিরা তাকে বুম বুম আফ্রিদি বলেও ডাকেন। ওয়ানডে ক্রিকেটে ৩৭টি বোল মোকাবেলা করে ১০০ রান করার রেকর্ডটি আফ্রিদির ছিলো। পাকিস্তানের জার্সি গায়ে ৪৫২ ম্যাচ খেলে সর্বমোট ৪০৪ ছক্কা হাকান। ছক্কা থেকে তার মোট রান সংখ্যা ২৪২৪।

ক্রিকেটের ইতিহাসে ঘটে যাওয়া ৩ টি আজব ঘটনা

পেসার থেকে স্পিনার:

অনেক সময় ম্যাচে একজন খেলোয়ারকে নানা ধরনের ভূমিকা পালন করতে হয়। অনেকে আবার এরকম পথ চলায় নতুন ধরনের ভিন্নতা খুঁজে পান। আমরা দেখেছি যে অনেক অনেক ব্যাটসম্যান বলার হয়ে গেছে আবার বলার ব্যাটসম্যান হয়ে গেছে। কেউ কেউ আবার পেসার থেকে স্পিনার হয়ে গেছেন। রবীন্দ্র চন্দ্র আসীন তার স্কুল ক্রিকেটে খেলেছিলেন মিডিয়াম পেসার হিসেবে। ইন্ডিয়ান ক্রিকেটের যুক্ত হওয়ার সময় সে স্পিনার হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। এখন তিনি ভারতের সেরা একজন স্পিনার।

ক্রিকেটের ইতিহাসে ঘটে যাওয়া ৩ টি আজব ঘটনা

সবচেয়ে লম্বা ছক্কা:

পৃথিবীর ক্রিকেট ক্রিকেট হচ্ছে একটি জনপ্রিয় খেলা এই খেলা মধ্যে সবচেয়ে বেশি চার ছয় হয় হচ্ছে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। এজন্য এই ফরমেটটিকে অনেক অনেক ক্রিকেটপ্রেমী মানুষ ভালোবাসেন। এটি দীর্ঘ সময়ের খেলা। সহিদ আফ্রিদি একজন অন্যতম সেরা খেলোয়াড়। তার খেলা মুগ্ধ করেছে সবাইকে। তিনি তার ক্যারিয়ারে অনেক বড় বড় ছয় মেরেছেন। একবার সাউথ আফ্রিকার সাথে আন্তর্জাতিক ম্যাচে একটি লম্বা ছয় মেরেছিলেন।

Mesin slot adalah sebuah mesin judi yang bergambar didalamnya dimainkan dengan tiga putaran atau lebih yang berputar ketika sebuah tombol ditekan. Mesin slot saat itu juga dikenal sebagai bandit bertangan satu karena mesin slot dioperasikan menggunakan sebuah tuas disamping mesin dengan mengarahkan ke bawah tuas tersebut maka gambar akan berputar secara acak sampai berhenti dan mendapatkan hasil bermain.

Meningkatnya penggemar mesin slot, maka muncul banyak mesin slot dengan permainan baru. Salah satunya yang paling terkenal adalah mesin slot buah, yang kita kenal dengan nama "dingdong". Permainan ini pada masanya gampang ditemui disetiap kota Indonesia, menjadikan nya sebagai judi yang paling digemari.

Menjamurnya tempat-tempat judi slot mesin, membuat pihak berwenang menutup semua kegiatan ini. Sehingga dalam rentan beberapa tahun permainan ini mulai dilupakan dan hilang nama besarnya. Berkembangnya judi online Indonesia untuk taruhan sportsbook dan casino membuat provider slot mengambil peluang besar ini untuk mengaplikasikan permainan mesin slot ke slot online. Dan permainan ini kembali muncul dan terkenal membuat para penggemar taruhan ini untuk bermain kembali. Berikut daftar situs judi slot online terpercaya:

  1. Nuke Gaming Tergacor
  2. Situs Slot Online Deposit Pulsa
  3. Situs Slot Gacor 2022
  4. Situs Slot Online Terbaik
  5. Situs Judi Slot Online Terpercaya Paling Gacor
  6. Situs Slot Online Terbaik
  7. Situs Judi Slot Terbaik Dan Terpercaya No 1
  8. Situs Judi Slot Online Gampang Menang
  9. Situs Judi Slot Online Terpercaya 2022
  10. Bocoran Slot Gacor Hari Ini
  11. Situs Judi Slot Terbaik Dan Terpercaya No 1
  12. Slot Online Yang Sering Kasih Jackpot
  13. Judi Slot Online Jackpot Terbesar
  14. Situs Judi Slot
  15. Link Situs Judi Slot Terpercaya
  16. Slot Deposit Dana
  17. Slot Deposit Pulsa Tanpa Potongan
  18. Slot88 Online
  19. Situs Judi Slot Online Gacor Terbesar 2022
  20. BO Slot Gacor
  21. Situs Judi Slot Online Terpercaya 2021
  22. Situs Judi Slot Online Resmi
  23. Situs Slot Deposit Pulsa Tanpa Potongan